রবিবার, ১৪ জুলাই ২০২৪, ০৭:০২ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
মহেশখালী প্রেস ক্লাবের সভাপতি পারভেজ এর মায়ের সুস্থতা কামনায় দোয়া মাহফিল কুতুবদিয়ায় পুকুরে ডুবে শিশুর মৃত্যু সাজ্জাদের রক্তের দাগ না শুকাতেই উখিয়ায় আবারো ড্রেজার মেশিনের পাহাড় কর্তন, ড্রেজার মেশিন জব্ধ! লামায় রাস্তা মেরামতের কাজ করলো ইয়াংছা সিএনজি সংগঠনের সদস্যরা! ৩৬ বছর ইমামতির পর বর্ণাঢ্য আয়োজনে ইমামের রাজকীয় বিদায় রামু মনিরঝিলের ক্ষতিগ্রস্ত সেতু ও রাস্তা পরিদর্শনে গিয়ে সংস্কারের উদ্যোগ হুইপ কমলের ফরহাদকে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি, কক্স—মিডিয়া এসোসিয়েশনের নিন্দা মহেশখালীতে ব্র্যাকের উদ্যোগে বৃক্ষরোপণ ও গাছের চারা বিতরণ মাছ ধরে বাড়ি ফেরা হলো না মাতারবাড়ীর কবির আহমদের মাতারবাড়ী সমাজ সেবা ফাউন্ডেশন সংগঠনের আত্মপ্রকাশ,অসহায় পরিবারের মাঝে ত্রাণ বিতরণ

উখিয়া ছাড়ছে এনজিও কর্মী ভাড়া দ্বিগুণ, যাত্রী তিনগুণ

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট টাইম : শনিবার, ১৭ জুলাই, ২০২১
  • ২১৯ বার পঠিত

শাহেদ হোছাইন মুবিন, উখিয়া।

স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার শর্তে সারা দেশে গণপরিবহন চালানোর অনুমতি দিয়েছে সরকার। ঈদকে সামনে রেখে আগের মতো ৬০ শতাংশ বর্ধিত ভাড়ায় ৮ দিনের জন্য এই অনুমতি দেওয়া হয়। কিন্তু সরকারের শর্ত মানছে না গণপরিবহনগুলো। অর্ধেক আসন ফাঁকা রাখার কথা থাকলেও সব আসনে যাত্রী তোলা হচ্ছে। দাঁড়িয়েও যাচ্ছেন যাত্রীরা। যাত্রীদের অভিযোগ দ্বিগুণ ভাড়া নেওয়া হলেও যাত্রী পরিবহন করা হচ্ছে তিনগুণ। রাতে উখিয়া টিকেট কাউন্টার এর সামনের এমন চিত্র দেখা গেছে।
পরিবহনের একটি গাড়ির প্রতিটি আসনেই যাত্রী। দাঁড়িয়েও আছেন কেউ কেউ। ছবি তুলতে গেলে দ্রুত স্থান ত্যাগ করে বাসটি।
উখিয়া টেকনাফ রোহিঙ্গা শিবিরের কর্মরত এনজিও কর্মীরা উখিয়া ছেড়ে যাচ্ছেন নিজ গ্রামে ঠিক সেই মুহূর্তে উখিয়ার কাউন্টার মালিক গুলো বসিয়েছে নির্ধারিত রেইড যা আগের তুলনায় দ্বিগুণ।
বাসটি থেকে উখিয়া স্টেশনের সোনালী ব্যাংকের সামনে নামেন যাত্রী এনজিও কর্মী কবির। জানতে চাইলে তিনি বলেন, কয়েক দিন লকডাউন থাকায় অনেকেই বাসা থেকে বের হয়নি। আজ অনেকে জরুরি কাজ সারতে একযোগে বেরিয়েছে। যাত্রী যত বেশি বাস তত কম। বাধ্য হয়ে অতিরিক্ত যাত্রী হয়ে বাসে উঠেছি।’
তিনি আরও বলেন, ‘ভাড়া কিন্তু কম নেয়নি। সবার কাছ থেকেই দ্বিগুণ আদায় করা হয়েছে।’
টেকনাফ থেকে সেঁজুতি ট্রাভেল উঠেছেন আলিম উদ্দিন। তিনি প্রতিবেদককে বলেন, তার সঙ্গে দাঁড়িয়েও ছিলেন অনেক যাত্রী। কোথাও পুলিশ ব্যবস্থা নেয়নি। ভাড়া কেন বেশি নেওয়া হচ্ছে জানতে চাইলে হেলপার বলে, ভাড়া না দিলে নেমে যান। প্রতিবাদ করার উল্টো গালাগাল শুনেছেন তিনি।
এছাড়াও শ্যামলী পরিবহন, সেন্টমার্টিন পরিবহন, সৌদিয়া, হাদিন ট্রাভেল,স্বাধীন ট্রাভেল,গ্রীন লাইন পরিবহনে দেখা গেছে অতিরিক্ত যাত্রী নেওয়া হচ্ছে। এতে ক্ষোভ প্রকাশ করেন বাসে আগে ওঠা যাত্রীরা।
রাত নামলেই উখিয়ায় এমন আরও চিত্র দেখা যায় ।
এ ব্যাপারে সেঁজুতি ট্রাভেল উখিয়া কাউন্টারের নুর খানের সাথে যোগাযোগ করলে বিষয়টি এড়িয়ে যান।
জানতে চাইলে সেঁজুতি ট্রাভেল সেলস অফিসার গিয়াস বলেন, ‘আমরা -শ্রমিকদের বলেছি যাতে তারা স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলেন। এখন কোন বাস কোন এলাকায় অতিরিক্ত যাত্রী নিচ্ছে সেটা তো দেখতে পারছি না। অতিরিক্ত যাত্রী হয়ে যাতে বাসে না ওঠেন সেজন্য যাত্রীদেরও অনুরোধ করছি আমরা।’

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..
এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Developed By Bangla Webs