রবিবার, ২৬ মে ২০২৪, ০৩:২৪ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
মাতারবাড়ীর “তৈয়্যবিয়া তাহেরিয়া সুন্নিয়া বালিকা দাখিল মাদ্রাসা”সুপার নিয়ম মানছেনা,রশিদ না কেটে টাকা আত্মসাৎ এর অভিযোগ! ধেয়ে আসছে ঘূর্ণিঝড়, আবহাওয়া অফিসের নতুন বার্তা কুতুবদিয়ায় দুই গ্রুপের সংঘর্ষে নিহত ১ আহত ৬ শেখ রাসেল জাতীয় শিশু কিশোর পরিষদ কক্সবাজার জেলা শাখার পরিচিতি সভা সম্পন্ন ঈদগাঁওতে ফার্নিচার কারখানায় ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড -কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি মহেশখালীর মাতারবাড়ীতে ২ শিক্ষার্থীকে বলাৎকারের অভিযোগ, অভিযুক্ত শিক্ষক লাপাত্তা ট্যুরিস্ট পুলিশের অভিযানে ছিনতাইকারী সহ আটক-৮ জনপ্রিয়তায় শীর্ষে তালেব আস্থার প্রতীক টেলিফোন বলছেন উপজেলাবাসী উখিয়ার লাল পাহাড়ে র‍‍্যাবের অভিযানে আরসা’র প্রধান সহ আটক-২ ২১ বছর পর মায়ের মৃত্যুর ক্ষতিপূরণ অনাথ শিশুকে বুঝিয়ে দিলেন ইঞ্জিনিয়ার সহিদুজ্জামান!

২১ নভেম্বর মহান সশস্ত্র বাহিনী দিবস

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট টাইম : রবিবার, ২১ নভেম্বর, ২০২১
  • ৩২০ বার পঠিত

মোঃ ওসমান গণি

রামু সেনানিবাসে সশস্ত্র বাহিনী দিবস ২০২১ উদযাপন। আজ ২১ নভেম্বর মহান সশস্ত্র বাহিনী দিবস। যথাযথ মর্যাদা উৎসাহ-উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে রামু সেনানিবাসস্থ ১০ পদাতিক ডিভিশনে, কক্সবাজারস্থ নৌ- ফরোয়ার্ড বেইস এবং শেখ হাসিনা বিমান ঘাঁটি কক্সবাজারের সমন্বয়ে সশস্ত্র বাহিনী দিবস ২০২১ উদযাপিত হয়।

অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য প্রদান করেন জিওসি ১০ পদাতিক ডিভিশন ও এরিয়া কমান্ডার কক্সবাজার এরিয়া মেজর জেনারেল মোঃ ফখরুল আহসান, বিএসপি, এনডিইউ,পিএসসি। অনুষ্ঠানে কক্সবাজার অঞ্চলের মাননীয় সংসদ সদস্যবৃন্দ, বীর মুক্তিযোদ্ধা ও তাদের পরিবারবর্গ, বিভিন্ন সংস্থার পদস্থ সরকারী ও বেসরকারী কর্মকর্তাগণ, রাজনৈতিক ও বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ, তিন বাহিনীর চাকুরীরত ও অবসরপ্রাপ্ত কর্মকর্তাবৃন্দ ও তদীয় পরিবারবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

স্বাগত বক্তব্যে জিওসি মহান মুক্তিযুদ্ধে অসামান্য অবদানের জন্য কক্সবাজার অঞ্চলের বীর মুক্তিযোদ্ধাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন এবং উপস্থিত সকল মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা, সম্মাননা ও উপহার প্রদান করেন।

তিনি বলেন, ১৯৭১ সালের এই দিনে বাংলাদেশ আর্মড ফোর্সেসের তিনটি শাখা যথাক্রমে সেনা ,নৌ ও বিমান বাহিনী নিজেদেরকে সীমিত যুদ্ধ সরঞ্জাম সহ কঠিন প্রশিক্ষণ দিয়ে সজ্জিত করে দখলদার পাকিস্তানি বাহিনীর বিরুদ্ধে সর্বাত্মক আক্রমণ রচনা করেছিল, যা মুক্তিযুদ্ধের বিজয়কে ত্বরান্বিত করে।

তিনি তার স্বাগত ভাষণে আরও বলেন, “এ পর্যন্ত সশস্ত্র বাহিনীর যা কিছু অর্জন ও সাফল্য তা সম্ভব হয়েছে কেবলমাত্র সশস্ত্র বাহিনীর উপর বর্তমান সরকারের আস্থা ও প্রয়োজনীয় দিকনির্দেশনা প্রদান, অসামরিক প্রশাসনের আন্তরিক সহযোগিতা এবং দেশের সকল নাগরিকের গভীর ভালোবাসার মাধ্যমে”।

তিনি দৃঢ়তার সাথে অনাগত দিনগুলিতেও সশস্ত্রবাহিনী দেশ ও জনগণের পাশে থেকে দেশের সার্বভৌমত্ব ও মর্যাদা অক্ষুন্ন রাখতে যেকোনো ত্যাগের জন্য সদা প্রস্তুত থাকার আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

দিনব্যাপী বিশেষ মোনাজাত/ দোয়া, জাতীয় পতাকা উত্তোলন, পুষ্পস্তবক অর্পণ, প্রীতিভোজ সহ নানাবিধ কার্যক্রম এর মধ্য দিয়ে কক্সবাজারের সকল সশস্ত্র বাহিনীর সদস্যবৃন্দ এই দিনটিকে উদযাপন করেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..
এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Developed By Bangla Webs