মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪, ১০:২০ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
কক্সবাজারে ‘মাদক প্রতিরোধে সামাজিক আন্দোলনের গুরুত্ব’ শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত রামুতে ৮টি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের অংশগ্রহনে দুর্নীতি বিরোধী বিতর্ক প্রতিযোগিতা উদ্বোধন ঢাকায় এসি বিস্ফোরণ: জীবন যুদ্ধে হেরে গেলেন মহেশখালী মাতারবাড়ীর আবদুল মান্নান মহেশখালীতে টমটম চাপায় দিনমজুর রফিক গুরুতর আহত শফি অবৈধ মালামাল নিয়ে দুবাই কারাগারে বন্দি মোরশেদ এ শিরোনামে বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশিত বিভ্রান্তিমুলক সংবাদের প্রতিবাদ আলোকিত মেধাবিকাশ স্বর্ণপদক বৃত্তি পরীক্ষায় মহেশখালী কে.জি এর শিক্ষার্থী আলিয়া ট্যালেন্টপুলে বৃত্তি লাভ মিয়ানমারের সীমান্ত এলাকা উখিয়ায় একাধিক অস্থায়ী পশুরহাট! ওয়াটারকিপার অ্যালায়েন্সের নির্বাহী পরিষদের সদস্য নির্বাচিত হলেন শরীফ জামিল। নিখোঁজ সংবাদ কিশলয় আদর্শ শিক্ষা নিকেতন এর ম্যানেজিং কমিটির নির্বাচন সম্পন্ন

স্থানীয় অর্থনৈতিক উন্নয়ন ত্বরান্বিত করণে কক্সবাজার পৌরসভা ও ‘প্রবৃদ্ধির’ সমঝোতা চুক্তি স্বাক্ষর

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট টাইম : বুধবার, ২১ ফেব্রুয়ারী, ২০২৪
  • ২৯১ বার পঠিত

সংবাদ বিজ্ঞপ্তি:

স্থানীয় অর্থনৈতিক উন্নয়ন প্রক্রিয়ার মাধ্যমে পৌরসভা পর্যায়ে টেকসই আর্থসামাজিক উন্নয়ন ত্বরান্বিতকরণের লক্ষ্যে কক্সবাজার পৌরসভা, সুইজারল্যান্ড ও বাংলাদেশ সরকারের যৌথ অর্থায়নে বাস্তবায়িত ‘প্রবৃদ্ধি’ প্রকল্পের মধ্যে একটি সমঝোতা চুক্তি সাক্ষরিত হয়। সোমবার ১৯ ফেব্রুয়ারি কক্সবাজার পৌরসভার সম্মেলন কক্ষে কক্সবাজার পৌরসভার মেয়র মো: মাহাবুবুর রহমান চৌধুরী ও প্রবৃদ্ধি প্রকল্পের টিম লিডার মার্কাস এহমান এক অনুষ্ঠানে ওই চুক্তি স্বাক্ষর করেন।
সৌন্দর্যের লীলাভূমি কক্সবাজারে প্রতিবছর লক্ষ লক্ষ দেশি এবং বিদেশী পর্যটকদের সমাগম হয়। রোহিঙ্গা শরণার্থীদের আগমনের কারণে সৃষ্ট চ্যালেঞ্জ সত্ত্বেও কক্সবাজার শত শত উন্নয়ন কর্মকর্তা এবং বিদেশী দর্শনার্থীদের সমাগম দেখেছে – যা এর অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধিতে উল্লেখযোগ্য অবদান রাখছে।
সাম্প্রতিক তথ্য অনুযায়ী, বর্তমানে কক্সবাজার পৌরসভার আওতাধীন ৫২০টিরও হোটেল, মোটেল, গেস্ট হাউস এবং রিসোর্ট রয়েছে। যাতে ১ লক্ষ ২০ হাজারেরও বেশী পর্যটকদের থাকার ব্যবস্থা আছে। বাংলাদেশের অর্থনীতির একটি সম্ভাবনাময় খাত হিসেবে পরিগণিত এই পর্যটন সেক্টরের আকার দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। বাংলাদেশ ইনভেস্টমেন্ট ডেভেলপমেন্ট অথোরিটি (বিডা)- এর তথ্য মতে, ২০১৯ সালে দেশের জিডিপিতে পর্যটন খাতের অবদান ৩ শতাংশ। কক্সবাজারে ক্রমবর্ধমান এই খাত প্রতিনিয়ত শত শত নতুন কর্মসংস্থানের সুযোগ তৈরি করছে। তবে, চাহিদার সাথে তাল মিলিয়ে দক্ষ মানবসম্পদের অভাব পর্যটন খাতে নতুন করে চ্যালেঞ্জ সৃষ্টি করছে।
মেয়র মোঃ মাহাবুবুর রহমান চৌধুরী টেকসই অর্থনৈতিক উন্নয়নের উপর জোর দিয়ে পৌরসভায় প্রবৃদ্ধি প্রকল্পের যাত্রা শুরু করায় আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন। স্থানীয় অর্থনৈতিক উন্নয়নে প্রবৃদ্ধির ভূমিকা ও গুরুত্ব তুলে ধরে মেয়র স্থানীয় ব্যবসায়ী ও উদ্যোক্তাদের সর্বাত্মক সহযোগিতার আহ্বান জানান। সরকারি-বেসরকারি অংশীদারিত্বের উপর গুরুত্ব আরোপ করে তিনি বলেন, স্থানীয় অর্থনৈতিক উন্নয়নের মাধ্যমে পৌরসভা এই এলাকার মানুষের জীবনমান উন্নয়নে বদ্ধপরিকর এবং একই সাথে এই প্রচেষ্টায় প্রবৃদ্ধির অংশিদারিত্বের ভূয়সী প্রশংসা করেন।
প্রবৃদ্ধির টিম লিডার মার্কাস এহমান, কক্সবাজার পৌরসভায় প্রকল্পের সম্প্রসারণের বিষয়ে জোর দিয়ে টেকসই অর্থনৈতিক উন্নয়নে প্রবৃদ্ধির ভূমিকার উপর আলোকপাত করেন। তিনি বলেন, পৌরসভাগুলো একে অন্যের সাফল্যে উৎসাহিত হয়ে নিজেদের এলাকায় এধরনের কর্মসূচি প্রণয়নের মাধ্যমে স্থানীয় অর্থনৈতিক উন্নয়নে ভূমিকা রাখবে। তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন যে এই উদ্যোগ সফলভাবে স্থানীয় পর্যায়ে অন্তর্ভুক্তিমূলক টেকসই উন্নয়নের প্রসার ঘটাবে।
তিনি আরো বলেন, স্থানীয় সরকার বিভাগ ও সুইসকন্টাক্টের যৌথ উদ্যোগে বাস্তবায়নাধীন প্রবৃদ্ধি প্রকল্পটি বর্তমানে দেশের সাতটি পৌরসভার সাথে স্থানীয় অর্থনৈতিক উন্নয়ন বিষয়ে কাজ করছে।
এই সময় উপস্থিত ছিলেন প্যানেল মেয়র-১ সালাউদ্দিন সেতু, প্যানেল মেয়র-৩ ইয়াছমিন আক্তার, কাউন্সিলর যথাক্রমে হেলাল উদ্দিন কবির, রাজ বিহারী দাশ, এস আই এম আক্তার কামাল আজাদ, নুর মোহাম্মদ মাঝু, এহেসান উল্লাহ, ওসমান সরওয়ার টিপু, শাহেনা আক্তার পাখি, জাহেদা আক্তারসহ পৌরসভার কর্মকর্তা ও প্রবৃদ্ধির কর্মকর্তাগণ। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন পৌরসভার সমাজ উন্নয়ন কর্মকর্তা শামীম আক্তার।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..
এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Developed By Bangla Webs