সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪, ০১:০৮ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
মহেশখালীতে আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে বর্ণাঢ্য র‍্যালি মাতারবাড়ীতে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের মাঝে উপজেলা চেয়ারম্যান জয়নাল আবেদীনের ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ মহেশখালী প্রেসক্লাবে প্রয়াত সাংবাদিক শফিকুল্লাহ খানের স্মরণে দোয়া মাহফিল কক্সবাজার পৌরশহরে বাদশাঘোনায় পাহাড় ধ্বসে ঘুমন্ত অবস্থায় স্বামী-স্ত্রীর মুৃত্যু! ছোট মহেশখালীতে নিখোঁজ মা-ভাইয়ের সন্ধান পেতে সন্তানের আকুতি খোন্দকারপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের পুনর্মিলনী অনুষ্ঠিত বর্ষার শুরুতেই কক্সবাজারের উখিয়ায় দুটি রোহিঙ্গা ক্যাম্পে পাহাড়ধস,নিহত-১১ কক্সবাজারে ‘মাদক প্রতিরোধে সামাজিক আন্দোলনের গুরুত্ব’ শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত রামুতে ৮টি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের অংশগ্রহনে দুর্নীতি বিরোধী বিতর্ক প্রতিযোগিতা উদ্বোধন ঢাকায় এসি বিস্ফোরণ: জীবন যুদ্ধে হেরে গেলেন মহেশখালী মাতারবাড়ীর আবদুল মান্নান

সৌদিতে উমরা পালনে গিয়ে সড়ক দূঘর্টনায় টেকনাফের এক মৌলভী নিহত

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ৭ মার্চ, ২০২৪
  • ১২৮ বার পঠিত

টেকনাফ (কক্সবাজার) প্রতিনিধি :

মুসলিম বিশ্বের পবিত্র নগরী সৌদি আরবে উমরা পালনে গিয়ে মদিনা হতে মক্কা যাওয়ার পথে সড়ক দূঘর্টনায় বাংলাদেশের কক্সবাজার টেকনাফ উপজেলার সন্তান মাওলানা হাফেজ মঈনুদ্দিন ইন্তেকাল করেছেন।
নিহত মঈনুদ্দীন টেকনাফ উপজেলার হ্নীলা ইউপির ফুলের ডেইল এলাকার বাসিন্দা দলিল লেখক মরহুম শেখ আহমদ মুন্সীর পুত্র।
তাঁকে সৌদি আরবে দাফনের প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছেন তাঁর পরিবার ।

পারিবারিক সূত্র জানায়,পবিত্র উমরা পালনের যাবতীয় কার্যক্রম সম্পন্ন করতে গত ৬ মার্চ ভোররাত প্রায় দেড়টার দিকে মদিনা হতে মক্কা যাওয়ার পথে হাফেজ মঈন উদ্দিনসহ ৭জনের ১টি বহর সৌদির আরবের আলাইন এলাকায় পৌঁছালে দূঘর্টনার কবলে পড়ে। এতে ঘটনাস্থলে হাফেজ মঈন উদ্দিনসহ ৩ জন মারা যায় এবং আরো ৪জন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে । নিহত হাফেজ মঈন উদ্দিন তিন ভাই ও দুই বোনের মধ্যে দ্বিতীয় ।

জানা গেছে,
গত মাসের ১৪ ফেব্রুয়ারিতে তিনি পবিত্র উমরা পালনের উদ্দেশ্যে সৌদি আরব গমন করেন। মরহুম হাফেজ মাওলানা মঈন উদ্দিনের সংসারে স্ত্রী, মেয়ে ওমামা (৩) এবং ছেলে মোহাম্মদ আদিল (৮মাস) রয়েছে। সে হ্নীলা ফুলের ডেইল আহমদিয়া দারুল কোরআন হেফজখানা ও নুরানী মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক এবং হোয়াইক্যং মনিরঘোনা আজিজুল উলুম মাদ্রাসার মুহাদ্দিস হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসছিলেন।

স্ত্রী সাজেদা জানায়,গত ৫মার্চ রাতে মুঠোফোনে আলাপকালে সে সৌদি আরবের অপরূপ সৌন্দর্যের কথা বর্ণনা করে সেখানে মৃত্যুবরণের ইচ্ছের কথা জানায়। তখন স্ত্রী ভারাক্রান্ত মনে ২টি অবুঝ ছেলে-মেয়ের দিকে তাকিয়ে এমন মন্তব্য না করার আহবান জানান। এরপর থেকে স্ত্রীর মনে অজানা আতংক বিরাজ করছিল। স্বামীকে বহনকারী গাড়ি দূঘর্টনার খবর পেয়ে স্ত্রী সাজেদার কাঁন্না শুরু হয়। সবশেষে মৃত্যু নিশ্চিত হওয়ার পর পরিবার ও আত্নীয়-স্বজনরা কাঁন্নায় ভেঙে পড়েন ।

মরহুমের শেষ ইচ্ছে ও পারিবারিক সিদ্ধান্তে আইনী প্রক্রিয়া শেষে মরহুম হাফেজ মাওলানা মঈন উদ্দিনকে সৌদি আরবে দাফনের প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে ।

হাফেজ মাওলানা মঈন উদ্দিনের ইন্তেকালে এলাকার জনপ্রতিনিধি, রাজনীতিবিদ, শিক্ষানুরাগী, শিক্ষক সমাজ ও ছাত্র-ছাত্রীসহ সর্বস্তরের মানুষ গভীরভাবে শোক প্রকাশ করেছেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..
এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Developed By Bangla Webs