মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪, ১০:০১ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
কক্সবাজারে ‘মাদক প্রতিরোধে সামাজিক আন্দোলনের গুরুত্ব’ শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত রামুতে ৮টি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের অংশগ্রহনে দুর্নীতি বিরোধী বিতর্ক প্রতিযোগিতা উদ্বোধন ঢাকায় এসি বিস্ফোরণ: জীবন যুদ্ধে হেরে গেলেন মহেশখালী মাতারবাড়ীর আবদুল মান্নান মহেশখালীতে টমটম চাপায় দিনমজুর রফিক গুরুতর আহত শফি অবৈধ মালামাল নিয়ে দুবাই কারাগারে বন্দি মোরশেদ এ শিরোনামে বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশিত বিভ্রান্তিমুলক সংবাদের প্রতিবাদ আলোকিত মেধাবিকাশ স্বর্ণপদক বৃত্তি পরীক্ষায় মহেশখালী কে.জি এর শিক্ষার্থী আলিয়া ট্যালেন্টপুলে বৃত্তি লাভ মিয়ানমারের সীমান্ত এলাকা উখিয়ায় একাধিক অস্থায়ী পশুরহাট! ওয়াটারকিপার অ্যালায়েন্সের নির্বাহী পরিষদের সদস্য নির্বাচিত হলেন শরীফ জামিল। নিখোঁজ সংবাদ কিশলয় আদর্শ শিক্ষা নিকেতন এর ম্যানেজিং কমিটির নির্বাচন সম্পন্ন

সীমানা বিরোধের জেরে সংবাদকর্মী ফরহাদকে মিথ্যা মামলায় আটকের ঘটনায় ক্ষুব্ধ সাংবাদিক মহল,দ্রুত মুক্তির দাবী

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ৪ জুন, ২০২৪
  • ৬০ বার পঠিত

শহর(কক্সবাজার)প্রতিনিধি:
কক্সবাজার শহরের সুপরিচিত সংবাদকর্মী জাতীয় অনলাইন গণমাধ্যম বি বার্তার কক্সবাজার জেলা প্রতিনিধি ও স্থানীয় পত্রিকার সংবাদকর্মী আবদুল্লাহ আল ফরহাদকে বাড়ীর সীমানা বিরোধের জেরে একটি সাজানো ও সম্পূর্ন পূর্ব পরিকল্পিত মিথ্যা মামলায় আটক করা হয়েছে। এ ঘটনায় কক্সবাজারের সংবাদকর্মীদের মাঝে ক্ষোভের সঞ্চার হয়েছে।
সংবাদকর্মী ফরহাদের স্ত্রী রুমানা আক্তার জানিয়েছেন,আমার স্বামী ফরহাদকে ২ জুন (রবিবার) সন্ধ্যা সাড়ে ৭ টার দিকে নিজবাড়ি শহরের ঝিলংজা ইউনিয়নের দক্ষিণ ডিককুল এলাকা থেকে সদর থানার একদল পুলিশ গিয়ে আটক করে নিয়ে আসে। এ সময় পুলিশের কাছ থেকে আমি কোন অভিযোগ বা ওয়ারেন্টের ভিত্তিতে স্বামীকে আটক করা হচ্ছে জানতে চাইলেও তারা জানাইনি। পরে সদর থানায় এসে খবর পেয়েছি গত ২৬ মে আমার স্বামীর বিরুদ্ধে আমার পার্শবর্তী অজুফা বেগম (২৭) একটি
ধর্ষন চেস্টা মামলা করেছে। রুমানা আক্তার দাবী করেন,আমার স্বামী ফরহাদ কোন ভাবেই এরকম ঘটনার সাথে জড়িত নয়। মূলত প্রবাসী ইয়াকুব আলীর ্ধসঢ়;স্ত্রী অজুফা বেগমের সাথে আমাদের সীমানা সংক্রান্ত বিরোধ চলছিল দীর্ঘদিন ধরে। এ বিষয়ে স্থানীয় ভাবে বেশ কয়েকবার বিচার মিমাংসাও করা হয়েছে।কোন ভাবেই আমাদের জমি গ্রাস করতে না পেরে অজুফা বেগম আমার স্বামীকে সম্পূর্ন মিথ্যা এবং বানোয়াট মামলায় আসামী করে প্রতিশোধ নিচ্ছে।
রুমানা আক্তার বলেন,আমার স্বামী রাতে দৈনিক আজকের দেশবিদেশ ও দৈনিক রূপালী সৈকত পত্রিকায় কাজ করে,যে ঘটনার তারিখ এবং সময় উল্লেখ করা হয়েছে সে সময় আমার স্বামী পত্রিকায় কর্মরত ছিল।মূলত অজুফা বেগম একজন দুঃচরিত্র মহিলা তার ব্যাপারে স্থানীয় ভাবে যাচাই বাছাই করলে সব সত্য কথা বেরিয়ে আসবে। সে এর আগেও অনেক ছেলেকে ফাঁদে ফেলে টাকা হাতিয়ে নিয়েছে। এটা তার পেশা এবং নেশা। এখানো মামলা আপোষ নেওয়ার জন্য আমাদের কাছে মোটা অংকের টাকা দাবী করছে। আর ধর্ষন চেস্টার মত একটি ঘটনা কোন প্রকার পূর্ব যাচাই বাছাই না করে কিভাবে সদর থানায় মামলা নথিভুক্ত হলো সেটা আশ্চর্য্য জনক। আমাদের শতশত প্রতিবেশী এরকম ঘটনায় হতবাক এবং সবাই থানায় এবং আদালতে গিয়ে স্বাক্ষী দেওয়ার জন্য প্রস্তুত যে ফরহাদ এরকম ঘটনার সাথে কোন ভাবেই জড়িত নয়। আর ধর্ষন চেস্টার মত কোন ঘটনাও ঘটেনি। তাই আমি ঘটনার সুষ্ট তদন্ত এবং আমার নির্দোশ স্বামীর মুক্তি দাবী করছি।
এদিকে সংবাদ কর্মী ফরহাদকে মিথ্যা মামলায় আটকের ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে দ্রুত ঘটনার সুষ্ট তদন্তপূর্বক এ বিষয়ে ব্যবস্থা নেওয়ার দাবী জানান দৈনিক আজকের দেশবিদেশ ও দৈনিক রূপালী সৈকত পত্রিকার কর্মরত সাংবাদিক সহ কক্সবাজারের সাংবাদিক সংগঠনের নেতারা।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..
এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Developed By Bangla Webs