শনিবার, ২৫ মে ২০২৪, ০১:৪৪ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
কুতুবদিয়ায় দুই গ্রুপের সংঘর্ষে নিহত ১ আহত ৬ শেখ রাসেল জাতীয় শিশু কিশোর পরিষদ কক্সবাজার জেলা শাখার পরিচিতি সভা সম্পন্ন ঈদগাঁওতে ফার্নিচার কারখানায় ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড -কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি মহেশখালীর মাতারবাড়ীতে ২ শিক্ষার্থীকে বলাৎকারের অভিযোগ, অভিযুক্ত শিক্ষক লাপাত্তা ট্যুরিস্ট পুলিশের অভিযানে ছিনতাইকারী সহ আটক-৮ জনপ্রিয়তায় শীর্ষে তালেব আস্থার প্রতীক টেলিফোন বলছেন উপজেলাবাসী উখিয়ার লাল পাহাড়ে র‍‍্যাবের অভিযানে আরসা’র প্রধান সহ আটক-২ ২১ বছর পর মায়ের মৃত্যুর ক্ষতিপূরণ অনাথ শিশুকে বুঝিয়ে দিলেন ইঞ্জিনিয়ার সহিদুজ্জামান! খুটাখালীতে বালু উত্তোলনকারী নাম বাদ দিয়ে নিরহ লোকের নামে অপপ্রচার ছোট মহেশখালী রাহাতজান পাড়া জামে মসজিদের মাইক চুরি

সর্বাত্মক লকডাউন বাস্তবায়নে চকরিয়াতে পরিস্হিতি পরিদর্শনে ডিসি

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ১৫ এপ্রিল, ২০২১
  • ৩৭২ বার পঠিত

জিয়াউল হক জিয়া।।
সারাদেশে করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধে দ্বিতীয় বারের মত আবারো ৭দিনের লকডাউন ঘোষনা করেন সরকার।
১৪ এপ্রিল (বুধবার) ভোর ৬টা থেকে শুরু হওয়া ‘সর্বাত্মক লকডাউন’র কার্যকর পরিস্হিতি পর্যবেক্ষণ করতে চকরিয়ায় এসেছেন কক্সবাজারের জেলা প্রশাসক(ডিসি) মো. মামুনুর রশীদ।
তিনি সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত চকরিয়া উপজেলার লকডাউনের সার্বিক পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করেছেন।

প্রথমে জেলা প্রশাসক চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কের চকরিয়াস্থ খুটাখালী বাজার এলাকায় লকডাউন পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করেন। এর পর তিনি পর্যায়ক্রমে ডুলাহাজারা, ফাঁসিয়াখালী, চকরিয়া পৌরসভার বাস টার্মিনাল, চিরিঙ্গা সোসাইটি, পুরাতন বাসস্টেশনসহ বিভিন্ন এলাকায় লকডাউন পরিস্থিতি স্বচক্ষে প্রত্যক্ষ করেন। ওই সময় জেলা প্রশাসক উপজেলা প্রশাসনের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের নানা দিক-নির্দেশনাও প্রদান করেন।

এ সময় সাথে ছিলেন চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সৈয়দ শামসুল তাবরীজ, উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. তানভীর হোসেন, চকরিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শাকের মোহাম্মদ যুবায়ের, ট্রাফিক পুলিশ ইন্সপেক্টর, থানার অপারেশন অফিসার মো. মোজাম্মেল হোসাইনসহ উপজেলা প্রশাসনের কর্মকর্তা কর্মচারী, আনসার সদস্য ও পুলিশ।

উল্লেখ্য, প্রথম ৭দিনের লকডাউন ঢিলেঢালা থাকলেও এবার কঠোর লকডাউন বাস্তবায়িত হয়েছে।কেননা মহাসড়কে গতবারের মত ত্রি-হুইলার গাড়ী চোখে পড়েনি।তবে কিছু মালবাহী গাড়ী দেখে মিলেছে।চকরিয়া উপজেলা ও থানা প্রশাসনের পক্ষ থেকে কঠোর লকডাউন বাস্তবায়নে সর্বাত্মক প্রচেষ্টা চালানো হচ্ছে।

চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) সৈয়দ শামসুল তাবরীজ বলেন,কোভিট-১৯ করোনা ভাইরাস সংক্রমণের প্রকোপ যেন চর্তদিকে ছড়িয়ে না পড়ে তার জন্য সরকার প্রজ্ঞাপন জারি করেন।এই প্রজ্ঞাপন অনুবলে ডিসি স্যারের নির্দেশনা মোতাবেক চকরিয়ায় ‘সর্বাত্মক লকডাউন’ কঠোর ভাবে কার্যকর করা হল।দ্বিতীয় দফা লকডাউন পরিস্হিতি পর্যবেক্ষণ করতে সকালে মাননীয় জেলা প্রশাসক স্যার চকরিয়া আসেন।আসার পথে তিনি খুটাখালী থেকে শুরু করে উপজেলার বিভিন্ন ষ্টেশন ও মহাসড়ক পরিস্থিতি দেখে সন্তোষ প্রকাশ করেন। পরে তিনি বিভিন্ন দিক-নির্দেশনা প্রদান মাধ্যমে বলেন,পরবর্তী ঘোষণা না আসা পর্যন্ত সর্বাত্মক লকডাউন কঠোরভাবে পালন করতে বলেছেন।সর্বাত্মক লকডাউন বাস্তবায়নে উপজেলা প্রশাসনের দুইজন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সহ পুলিশ কাজ করেছেন।

চকরিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শাকের মোঃ যুবায়ের জানান, সর্বাত্মক লকডাউক বাস্তবায়নে চকরিয়া উপজেলাস্হ মহাসড়কের পুলিশের তিনটি চেকপোষ্ট বসানো হয়েছে।চেকপোষ্ট বসানোর স্হান হল আজিজনগর,খুটাখালী চিরিঙ্গা ও মালুমঘাট হাইওয়ে পুলিশের পক্ষ থেকে চেকপোষ্ট বসানো হয়েছে।এছাড়াও থানা পুলিশের পক্ষ থেকে চকরিয়া পৌরশহরের বক্সরোডে একটি, বিভিন্ন সংযোগ সড়কের মাথায় আরো কয়েকটি চেকপোষ্ট বসানো হয়েছে।যাতে কোন যাত্রীবাহী গাড়ী চলাচল করতে না পারে সেই ব্যবস্হা নেওয়া হচ্ছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..
এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Developed By Bangla Webs