মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ০২:২৭ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
৪৫ কোটি টাকার রাস্তা আড়াই বছরেও শেষ হয়নি ৫ কিলোমিটার সড়ক সংস্কার খুটাখালীতে স্বাস্হ্য কমপ্লেক্সের সীমানা-প্রাচীরের একাংশ ভেঙ্গে পড়েঃআরো ভাঙ্গার সম্ভাবনা ১৯ উপজেলায় নির্বাচন স্থগিত! মাতারবাড়ীর “তৈয়্যবিয়া তাহেরিয়া সুন্নিয়া বালিকা দাখিল মাদ্রাসা”সুপার নিয়ম মানছেনা,রশিদ না কেটে টাকা আত্মসাৎ এর অভিযোগ! ধেয়ে আসছে ঘূর্ণিঝড়, আবহাওয়া অফিসের নতুন বার্তা কুতুবদিয়ায় দুই গ্রুপের সংঘর্ষে নিহত ১ আহত ৬ শেখ রাসেল জাতীয় শিশু কিশোর পরিষদ কক্সবাজার জেলা শাখার পরিচিতি সভা সম্পন্ন ঈদগাঁওতে ফার্নিচার কারখানায় ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড -কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি মহেশখালীর মাতারবাড়ীতে ২ শিক্ষার্থীকে বলাৎকারের অভিযোগ, অভিযুক্ত শিক্ষক লাপাত্তা ট্যুরিস্ট পুলিশের অভিযানে ছিনতাইকারী সহ আটক-৮

মহেশখালী কলেজের সেই ছাত্রীকে মামলা তুলে নিতে হুমকি দিচ্ছে আসামীরা

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ১১ মে, ২০২১
  • ২১৩ বার পঠিত

নিজস্ব প্রতিবেদক।
মহেশখালী কলেজের ছাত্রীর দায়ের করা মামলা তুলে নেওয়ার জন্য আসামীদের পক্ষ থেকে হুমকি দেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। গতকাল মামলার বাদী কক্সবাজারে সংবাদ সম্মেলন করে এই অভিযোগ করেন।
বিগত ১৯ এপ্রিল রাত ৯টার দিকে বাদী চাচার বাসা থেকে নিজের বাড়িতে যাওয়ার পথে, মহেশখালী পৌরসভার চরপাড়া এলাকার আমান উল্লাহর পুত্র তারেক (২২), গোরকঘাটার সিকদার পাড়া এলাকার মাহবুব আলমের পুত্র মহিউদ্দিন (৩০), চরপাড়া এলাকার রৌশন আলীর পুত্র সানা উল্লাহ (৩২) সহ অজ্ঞাতনামা আরো ৩/৪ জন সহযোগী বখাটে যুবক মিলে চলাচলে পথরোধ করে তাকে উত্যক্ত করে। একপর্যায়ে তারা তাকে অপহরণ করার চেষ্টা করে এবং অনৈতিক প্রস্তাব দেয়। পরে স্থানীয় লোকজন কলেজ ছাত্রীকে বখাটেদের হাত থেকে উদ্ধার করে বাড়িতে পৌছে দেয়। এই ঘটনায় গত ২৩ এপ্রিল মহেশখালী থানায় লিখিত এজাহার দেয়া হয়।
মহেশখালী থানা ঘটনার প্রাথমিক সত্যতা পাওয়ায় একই দিনে এজাহারটি নিয়মিত মামলা হিসেবে রুজু করে। মামলা রুজু হওয়ার পর থেকে আসামি ও তাদের সহযোগীরা নানা ভাবে মামলা তুলে নেওয়ার হুমকি দিয়ে আসছে এবং মামলা প্রত্যাহারের জন্য প্রভাবশালী লোকজন ও সন্ত্রাসী দিয়ে কলেজ ছাত্রীর পরিবারের উপর চাপ সৃষ্টি করে আসছে।
এই ছাত্রী বলেন, সন্ত্রাসীদের হুমকির কারণে আমার নিয়মিত পড়ালেখা ও স্বাভাবিক জীবনযাপন ও চলাচল কষ্ট সাধ্য হয়ে পড়েছে।
তিনি আরো জানান, মামলা রুজু হওয়ার পর থেকে একটি মহল মামলাটিকে ভিন্নখাতে প্রবাহিত করার জন্য বিভিন্ন সোসাল মিডিয়ায় মাধ্যমে তার পিতৃতুল্য শিক্ষকদের জড়িয়ে অপপ্রচার করে আসছে। অথচ ১৯ এপ্রিল ঘটনার সাথে ঐ শিক্ষকদের নুন্যতম সম্পর্ক নেই।
তিনি বলেন, যা আমি কখনো প্রত্যাশা করিনি। কুরুচিপূর্ণ পোষ্ট প্রদান করা থেকে বিরত থাকার জন্য তিনি আহবান জানান। তিনি মামলার আসামীদের দ্রুত গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনার জন্য জেলার পুলিশ সুপারের সহযোগিতা কামনা করেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..
এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Developed By Bangla Webs