শনিবার, ২৫ মে ২০২৪, ০২:৪৪ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
কুতুবদিয়ায় দুই গ্রুপের সংঘর্ষে নিহত ১ আহত ৬ শেখ রাসেল জাতীয় শিশু কিশোর পরিষদ কক্সবাজার জেলা শাখার পরিচিতি সভা সম্পন্ন ঈদগাঁওতে ফার্নিচার কারখানায় ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড -কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি মহেশখালীর মাতারবাড়ীতে ২ শিক্ষার্থীকে বলাৎকারের অভিযোগ, অভিযুক্ত শিক্ষক লাপাত্তা ট্যুরিস্ট পুলিশের অভিযানে ছিনতাইকারী সহ আটক-৮ জনপ্রিয়তায় শীর্ষে তালেব আস্থার প্রতীক টেলিফোন বলছেন উপজেলাবাসী উখিয়ার লাল পাহাড়ে র‍‍্যাবের অভিযানে আরসা’র প্রধান সহ আটক-২ ২১ বছর পর মায়ের মৃত্যুর ক্ষতিপূরণ অনাথ শিশুকে বুঝিয়ে দিলেন ইঞ্জিনিয়ার সহিদুজ্জামান! খুটাখালীতে বালু উত্তোলনকারী নাম বাদ দিয়ে নিরহ লোকের নামে অপপ্রচার ছোট মহেশখালী রাহাতজান পাড়া জামে মসজিদের মাইক চুরি

বেড়িবাঁধ রক্ষায় ভাঙন থেকে বালু উত্তোলন করে জিও ব্যাগ দিচ্ছে পাউবো

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট টাইম : সোমবার, ৪ অক্টোবর, ২০২১
  • ১৬২ বার পঠিত

আমিরুল ইসলাম রাশেদ

কক্সবাজারের পেকুয়া উপজেলার উজানটিয়া ইউনিয়নের করিমদাত চৌধুরী ঘাটের পূর্ব পাশে নদীর ভাঙন থেকে বেড়িবাঁধ রক্ষায় ৮হাজার পিচ জিওব্যাগ দিচ্ছেন বান্দরবান পানি উন্নয়ন বোর্ড।
সরজমিনে গিয়ে দেখা যায়, ভাঙনের ১০০ফুট ভিতর থেকে বালু উত্তোলন করে,আবার ওই বালু জিও ব্যাগে ভরে ভাঙনে দিচ্ছেন। ইতোমধ্যে যে ব্যাগ গুলো পেলেছেন পানির ডেউয়ে কিছু ব্যাগ চলে যাচ্ছে নদীর মাঝখানে এগুলা সেলু মেশিন দিয়ে উত্তোলন করে নতুন করে ব্যাগে ভরছেন। এভাবে চলছে বান্দরবান পানি উন্নয়ন বোর্ডের কাজ।এই কাজ বাস্তবায়ন করছেন আয়েশা কনস্ট্রাকশন নামে একটি প্রতিষ্ঠান। আপদকালীন বরাদ্দ হিসাবে এই কাজ করা হচ্ছে।
নয় ছয় করে, উন্নয়নের নামে চলছে সরকারি টাকা আত্মসাৎ। ০৪ অক্টোবর পানি উন্নয়ন বোর্ডের কর্মকর্তারা পরিদর্শনে আসলে স্থানীয়রা প্রতিবাদ জানান। এভাবে চলতে থাকলে বাজার, স্কুল, মসজিদ সহ পুরা গ্রাম নদীতে বিলিন হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।
পেকুয়া উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির সভাপতি ও বাংলাদেশ পরিবেশ আনদোলন(বাপা) পেকুয়া উপজেলা সহ সভাপতি হানিফ চৌধুরী বলেন,’পানি উন্নয়ন বোর্ড নদী ভিতর থেকে বালু উত্তোলন করে, আবার একই জায়গায় দিচ্ছেন।এটার কারণে ভাঙন বন্ধ হবে না বরংছে ভাঙন বৃদ্ধি পাবে। এটা উন্নয়ের নামে চলছে তামশা, সরকারি টাকা আত্মসাৎ।
বান্দরবান পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী অরুপ চক্রবর্তী বলেন,’কয় টাকা বরাদ্দ সে কাগজ পত্র এখনো পাইনি,জরুরীভাবে কাজ করাচ্ছি।বরাদ্দের জন্য উর্ধতন কতৃপক্ষের কাছে আবেদন পাঠিয়েছি। সেটা পাস হয়ে এখনো আসেনি। ছোট নদী তা আবার গভীর ওকান থেকে বালু উত্তোলন করলে ভাঙন বৃদ্ধি পাবে কিনা জানতে চাইলে বলেন, মাঝখান থেকে বালু নিলে কোন সমস্যা হবে না। টাকা বাঁচানোর জন্য এটা করা হচ্ছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..
এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Developed By Bangla Webs