মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ০১:০৮ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
৪৫ কোটি টাকার রাস্তা আড়াই বছরেও শেষ হয়নি ৫ কিলোমিটার সড়ক সংস্কার খুটাখালীতে স্বাস্হ্য কমপ্লেক্সের সীমানা-প্রাচীরের একাংশ ভেঙ্গে পড়েঃআরো ভাঙ্গার সম্ভাবনা ১৯ উপজেলায় নির্বাচন স্থগিত! মাতারবাড়ীর “তৈয়্যবিয়া তাহেরিয়া সুন্নিয়া বালিকা দাখিল মাদ্রাসা”সুপার নিয়ম মানছেনা,রশিদ না কেটে টাকা আত্মসাৎ এর অভিযোগ! ধেয়ে আসছে ঘূর্ণিঝড়, আবহাওয়া অফিসের নতুন বার্তা কুতুবদিয়ায় দুই গ্রুপের সংঘর্ষে নিহত ১ আহত ৬ শেখ রাসেল জাতীয় শিশু কিশোর পরিষদ কক্সবাজার জেলা শাখার পরিচিতি সভা সম্পন্ন ঈদগাঁওতে ফার্নিচার কারখানায় ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড -কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি মহেশখালীর মাতারবাড়ীতে ২ শিক্ষার্থীকে বলাৎকারের অভিযোগ, অভিযুক্ত শিক্ষক লাপাত্তা ট্যুরিস্ট পুলিশের অভিযানে ছিনতাইকারী সহ আটক-৮

বৃষ্টি নেই,সড়কে জমে আছে র্দূগন্ধযুক্ত পানিঃদেখার কেউ নেই

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট টাইম : রবিবার, ২ মে, ২০২১
  • ৪৪৭ বার পঠিত

জিয়াউল হক জিয়াঃ
চকরিয়া উপজেলার খুটাখালী ইউনিয়নস্হ মহাসড়ক সংলগ্ন পূর্বপাড়ার সংযোগ সড়কে জমে আছে গন্ধযুক্ত পানি। বৃষ্টি নেই তাই বেহাল দশায় দেখার যেন কেউ নেই।
পথচারী ও বাজারের দোকানদারের জানান,এই সড়কে জমে থাকা পানিগুলো বৃষ্টির পানি নয়।এসব পানি হচ্ছে খাবার হোটল আল মাজিদিয়া রেষ্টুরেন্ট ও বিরাণী হাউস সহ আশপাশের ভবনের টয়লেটের নলগুলো পূর্বপাড়া সড়কের ড্রেইনে সংযুক্ত করিয়ে দেওয়ার ফলে মল সহ র্দূগন্ধযুক্ত পানি আসে।বিভিন্ন ধরণের ময়লা,আর্বজনা ও খোসা পেলে ভরাট হয়ে যায়।যার কারণ এই পানিগুলো ড্রেইন দিয়ে যেতে না পারায় রাস্তা চলে এসে জমে যায়।এই কারণ সড়কের নিচু এই জায়গাতে পানি এসে জমে আছে।ফলে পানির র্দূগন্ধে দম বন্ধ হয়ে যায়-যায় অবস্হা।সুতরাং ড্রেইনে সংযোগ করা পাইপ লাইন সরানো ও ড্রেইনের ময়লা সরানোর দাবি সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করছি বলে জানান।

সরেজমিনে দেখা যায়,ড্রেইনটি ময়ল আর্বজনা ভরে গেছে।উক্ত ডেইন বাজারের বিভিন্ন খাবার হোটেল,দোকানপাট,আশপাশে থাকা ভবনের টয়লেটের পাইপ লাইন সংযুক্ত আছে।সড়কের মধ্যখানে একটি কালর্ভাট আছে।যার দু’পাশের ছিদ্র ময়লাতে ভরপুর।সর্বপুরি ড্রেইনটি পরিস্কার ও টয়লেটের পাইপ লাইন না সরালে বর্ষা মৌসুমের সমস্ত পানি এই সড়কের উপর দিয়ে চলাচল করবে।কিন্তু বেশীভাগ পানি সড়কেই জমে থাকবে।ফলে সড়কটি পানিতে ডুবে থাকবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।তবে দ্রুত এসব পানি অপসারণ করা না হলে র্দূগন্ধ বিভিন্ন রোগ ছড়াবে।

খুটাখালী ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ডের মেম্বার আনোয়ার হোসেন বলেন,সকড়ে জমে থাকা পানি গুলো খাবার হোটেল সহ আশপাশের বিভিন্ন ভবনের র্দূগন্ধযুক্ত পানি।যারা ড্রেইনে পাইন লাইন সংযুক্ত করেছে আর যারা ময়লা ফেলেছে।তাদেরকে নিজ দায়িত্বে এসব তলে ফেলার নির্দেশ দেওয়া হবে।কথা না শুনলে বিষয়টি উর্ধ্বতন প্রশাসনের মাধ্যমে আইনগত ব্যবস্হা নিতে বাধ্য হব বলে জানিয়েছেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..
এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Developed By Bangla Webs