সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪, ০১:২২ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
মহেশখালীতে আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে বর্ণাঢ্য র‍্যালি মাতারবাড়ীতে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের মাঝে উপজেলা চেয়ারম্যান জয়নাল আবেদীনের ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ মহেশখালী প্রেসক্লাবে প্রয়াত সাংবাদিক শফিকুল্লাহ খানের স্মরণে দোয়া মাহফিল কক্সবাজার পৌরশহরে বাদশাঘোনায় পাহাড় ধ্বসে ঘুমন্ত অবস্থায় স্বামী-স্ত্রীর মুৃত্যু! ছোট মহেশখালীতে নিখোঁজ মা-ভাইয়ের সন্ধান পেতে সন্তানের আকুতি খোন্দকারপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের পুনর্মিলনী অনুষ্ঠিত বর্ষার শুরুতেই কক্সবাজারের উখিয়ায় দুটি রোহিঙ্গা ক্যাম্পে পাহাড়ধস,নিহত-১১ কক্সবাজারে ‘মাদক প্রতিরোধে সামাজিক আন্দোলনের গুরুত্ব’ শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত রামুতে ৮টি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের অংশগ্রহনে দুর্নীতি বিরোধী বিতর্ক প্রতিযোগিতা উদ্বোধন ঢাকায় এসি বিস্ফোরণ: জীবন যুদ্ধে হেরে গেলেন মহেশখালী মাতারবাড়ীর আবদুল মান্নান

বনভূমিতে মাদক মামলার আসামির আলিসান বাড়ি নির্মাণ!

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট টাইম : সোমবার, ২২ এপ্রিল, ২০২৪
  • ৪২ বার পঠিত

নিজস্ব প্রতিবেদক,কক্সবাজার:
কক্সবাজার দক্ষিণ বন বিভাগের কক্সবাজার রেঞ্জের ঝিলংজা বন বিটের আওতাধীন ফুটখালীতে সংরক্ষিত বনের জমি দখল করে পাকা ঘর নির্মাণ করছে একজন মাদক মামলার আসামী। বনের জায়গায় দখল করে একেরপর এক ঘর নির্মাণ করা হলেও সংশ্লিষ্ট দপ্তর নির্বিকার।

জানা যায়, সদর উপজেলার ঝিলংজা ইউনিয়নের ৩ নং ওয়ার্ডের ফুটখালীতে বনভূমি দখল করে পাকাঘর নির্মাণ করছে মোহাম্মদ নুরের পুত্র নুরুল ইসলাম প্রকাশ সিএনজি ড্রাইভার নুরু। যার ফলে পরিবেশে ও জীববৈচিত্র মারাত্মক ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছে।

আরও জানা যায়, বনের জমি দখল করে পাকা ঘর নির্মাণকারী নুরুল ইসলাম একজন মাদক মামলার আসামী। সে বেশকিছু দিন আগে ইয়াবাসহ আটক হয়ে কারাভোগ করে। পরে জামিনে বেরিয়ে এসে বনের জমি দখল করে লাখ লাখ টাকা খরচ করে আলিসান বাড়ি নির্মাণ করছে।

স্হানীয়রা জানান,নুরুল ইসলাম একজন সিএনজি চালক, সে কয়েকবছর পূর্বে ইয়াবা পাচার করতে গিয়ে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর হাতে আটক হয়ে কারাভোগ করেছে।জামিনে বেরিয়ে এসে হঠাৎ লাখ লাখ টাকা খরচ আলিসান বাড়ি নির্মাণ কিভাবে করছে।সে একজন সিএনজি চালক হয়ে এত টাকা কোথায় পেলো! তার আয়ের উৎস কি তা খতিয়ে দেখার জন্য প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন স্হানীয়রা।

বনের জমি দখল করে পাকা ঘর নির্মাণ ও তার বিরুদ্ধে মাদক মামলার বিষয়ে জানতে চাইলে বলেন, আমি স্বীকার করছি আমার বিরুদ্ধে একটি মাদক মামলা রয়েছে। তবে আমি এই মামলায় জামিনে আছি।পুলিশ আমাকে দু’শত পিস ইয়াবাসহ আটক করেছিল।আমার বাবা মোহাম্মদ নুর বন বিভাগের একজন সদস্য। তাই বনের জমিতে বাড়ি করতে আমার কোনপ্রকার বাঁধা নেই।

কক্সবাজার রেঞ্জ কর্মকর্তা সমীর রঞ্জন সাহা বলেন,এবিষয়ে আমি অবগত নয়, এখন জানলাম। খোঁজ নিয়ে আইনানুগ ব্যবস্থা নেবো।বনভূমি দখল করে কাউকে করতে দেয়া হবে না। সেই যে-ই হোক তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..
এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Developed By Bangla Webs