মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ০১:০৬ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
৪৫ কোটি টাকার রাস্তা আড়াই বছরেও শেষ হয়নি ৫ কিলোমিটার সড়ক সংস্কার খুটাখালীতে স্বাস্হ্য কমপ্লেক্সের সীমানা-প্রাচীরের একাংশ ভেঙ্গে পড়েঃআরো ভাঙ্গার সম্ভাবনা ১৯ উপজেলায় নির্বাচন স্থগিত! মাতারবাড়ীর “তৈয়্যবিয়া তাহেরিয়া সুন্নিয়া বালিকা দাখিল মাদ্রাসা”সুপার নিয়ম মানছেনা,রশিদ না কেটে টাকা আত্মসাৎ এর অভিযোগ! ধেয়ে আসছে ঘূর্ণিঝড়, আবহাওয়া অফিসের নতুন বার্তা কুতুবদিয়ায় দুই গ্রুপের সংঘর্ষে নিহত ১ আহত ৬ শেখ রাসেল জাতীয় শিশু কিশোর পরিষদ কক্সবাজার জেলা শাখার পরিচিতি সভা সম্পন্ন ঈদগাঁওতে ফার্নিচার কারখানায় ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড -কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি মহেশখালীর মাতারবাড়ীতে ২ শিক্ষার্থীকে বলাৎকারের অভিযোগ, অভিযুক্ত শিক্ষক লাপাত্তা ট্যুরিস্ট পুলিশের অভিযানে ছিনতাইকারী সহ আটক-৮

প্রবলবর্ষনে পাহাড় ধ্বসে টেকনাফে নিহত-১ আহত-৫

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট টাইম : মঙ্গলবার, ২৭ জুলাই, ২০২১
  • ১৮৫ বার পঠিত

এম এ হাসান।

কয়েক দিনের প্রবল বর্ষনে টেকনাফ উপজেলা হোয়াইক্যং ইউনিয়নের মনির ঘোনায় পাহাড় ধ্বসে রকিম আলী নামের একব্যাক্তির মৃত্যু হয়েছে বলে এলাকার সুত্রে খবর পাওয়া গেছে।এদিকে টেকনাফ উপজেলা প্রশাসন পাহাড়ের পাদদেশে বসবাসকারী লোকজনদেরকে সরে নিয়ে আসছে। তাদের জন্য টেকনাফ উপজেলা সংলগ্ন সরকারি এজাহার বালিকা উচ্চবিদ্যালয়ে আশ্রয় কেন্দ্র খোলা হয়েছে।এই রিপোর্ট লিখা পর্যন্ত উক্ত আশ্রয় কেন্দ্রে ৮০/৯০ জন আশ্রয় নিয়েছেন। তাদের খাওয়ারের ব্যবস্থা করা হয়েছে বলে উপজেলা প্রশাসন সুত্রে জানা গেছে।

উপজেলা ঘূর্ণিঝড় প্রস্তুতি কর্মসূচি (সিপিপি) আজ সকাল হতে উপজেলা ৬টি ইউনিয়নের এবং পৌরসভার নিম্মাঞ্চল থেকে সরে এসে স্ব স্ব আশ্রয় কেন্দ্রে আশ্রয় নেওয়ার জন্য মাইকিং করা হচ্ছে বলে উপজেলা সিপিপি কর্মকর্তা আব্দুল মতিন জানান।
তিনি বলেছেন সকালের প্রবলবর্ষনে উপজেলা পরিষদ সংলগ্ন বৈদ্যর ঘোনা ও ফকিরা মোরা নুর আহমদের ঘোনাসহ বিভিন্ন স্থানে পাহাড় ধ্বস হয়েছে।

উক্ত এলাকার লোকজনদেরকে সিপিপি’র সেচ্ছাসেবক কর্মিরা সরিয়ে এনে আশ্রয় কেন্দ্রে পৌঁছে দিয়েছেন। এছাড়া উপজেলার বিভিন্ন স্থানে বন্যায় প্রবলিত এলাকর লোকজনদেরকে সরিয়ে এনে আশ্রয় কেন্দ্রে খাবার দাবারের ব্যবস্থা করানোর জন্য স্ব স্ব ইউনিয়নের সিপিপি লিডারদেরকে অনুরোধ করেছে বলে উপজেলা সিপিপি’র কর্মকর্তা আব্দুল মতিন জানান।

এবিষয়ে টেকনাফ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ পারভেজ চৌধুরীর সাথ যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, প্রবল বর্ষনের ক্ষতিগ্রস্থ লোকজনদেরকে সার্বিক সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে। উপজেলা পরিষদে কন্ট্রোল রোম খোলা হয়েছে। যা ২৪ ঘন্টা খোলা থাকবে। এর পাশাপাশি সরকারি এজাহার বালিকা উচ্চবিদ্যালয়ে আশ্রয় কেন্দ্র খোলা হয়েছে। এখানে খাবার-দাবারের ব্যবস্থা করা হয়েছে। প্রত্যেকটি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানদেরকে নিম্মাঞ্চলের লোকজন ও পাহাড়ি এলাকর লোকজনদেরকে সরিয়ে এনে আশ্রয়ের ব্যবস্থা করার জন্য বলা হয়েছে।

আহত ব্যক্তিদেরকে হাসপাতালে চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হয়েছে।হোয়াইকর‍্যংয়ে নিহত ব্যক্তির দাফন সম্পন্ন করার জন্য উপজেলা সহকারী কমিশনার ভূমি মোঃএরফানুল হক চৌধুরীসহ স্থানীয় চেয়ারম্যান, বন বিভাগের লোকজন ও স্থানীয় গন্যমাণ্য ব্যক্তিবর্গ ঘটনাস্থলে রয়েছেন। কক্সবাজার জেলা প্রশাসক মোঃ মামুনুর রশিদ সার্বক্ষণিক যোগাযোগ রাখছে বলে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জানান।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..
এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Developed By Bangla Webs