সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪, ০১:২১ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
মহেশখালীতে আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে বর্ণাঢ্য র‍্যালি মাতারবাড়ীতে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের মাঝে উপজেলা চেয়ারম্যান জয়নাল আবেদীনের ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ মহেশখালী প্রেসক্লাবে প্রয়াত সাংবাদিক শফিকুল্লাহ খানের স্মরণে দোয়া মাহফিল কক্সবাজার পৌরশহরে বাদশাঘোনায় পাহাড় ধ্বসে ঘুমন্ত অবস্থায় স্বামী-স্ত্রীর মুৃত্যু! ছোট মহেশখালীতে নিখোঁজ মা-ভাইয়ের সন্ধান পেতে সন্তানের আকুতি খোন্দকারপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের পুনর্মিলনী অনুষ্ঠিত বর্ষার শুরুতেই কক্সবাজারের উখিয়ায় দুটি রোহিঙ্গা ক্যাম্পে পাহাড়ধস,নিহত-১১ কক্সবাজারে ‘মাদক প্রতিরোধে সামাজিক আন্দোলনের গুরুত্ব’ শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত রামুতে ৮টি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের অংশগ্রহনে দুর্নীতি বিরোধী বিতর্ক প্রতিযোগিতা উদ্বোধন ঢাকায় এসি বিস্ফোরণ: জীবন যুদ্ধে হেরে গেলেন মহেশখালী মাতারবাড়ীর আবদুল মান্নান

চকরিয়ায় লাল পতাকা উপেক্ষা করে অবৈধ বালু উত্তোলনঃ যানচলাচল ব্যাহত

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট টাইম : সোমবার, ১৯ ফেব্রুয়ারী, ২০২৪
  • ১৪৪ বার পঠিত

স্টাফ রিপোর্টার,কক্সবাজার:

কক্সবাজারের চকরিয়া উপজেলার বমুবিলছড়ি ইউনিয়নস্হ বমুখাল থেকে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করছেন স্হানীয় প্রভাবশালী কয়েকজন লোকের এক সিন্ডিকেট।ফলে এলাকাবাসী অতিষ্ঠ হয়ে উপজেলা প্রশাসনকে অভিযোগ দেন।অভিযোগের ভিত্তিতে সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট গিয়ে বালু মহালে লাল পতাকা উঁচিয়ে দিয়ে বালু না তোলার জন্য নিষেধ করে দেন।
কিন্তু স্হানীয় প্রভাবশালী বালু সিন্ডিকেটেরা প্রশাসনের লাল পতাকা নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে প্রতিনিয়ত চলছে বালু উত্তোলন ও সরবরাহ।বালু উত্তোলনের স্হানটি ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের পান্নিশারবিল বমুখাল।

স্হানীয়রা জানান,স্হানীয় প্রশাসনের প্রভাব বিস্তার করে বালু উত্তোলনের নেতৃত্ব দেন আমিনুল হক মুক্তা সিন্ডিকেট।দিন-রাত বালু উত্তোলনের ফলে বালু বহনকারী চলাচলের কারণে ধূলা-বালি,যানজটে অতিষ্ঠ এলাকাবাসী।এছাড়াও দীর্ঘদিন পরে সংস্কার হওয়া সড়কটির বহাল দশা হয়ে পড়তে শুরু করেছে।

স্হানীয় বাসিন্দা ভুক্তভোগী মোঃআব্দুল্লাহ জানান,সোমবার রাত পৌন ৭টার দিকে তার ছোট্ট শিশুকে নিয়ে ডাক্তারের কাছে যাচ্ছিল।এমতাবস্থায় পথের মধ্যে বালুবাহী ৩/৪টি গাড়ী এক সঙ্গে এসে একমাত্র সড়কে যানজট সৃষ্টি করে।প্রায় ৪০মিনিটের যানজটের কারন জানতে চেয়ে প্রতিবাদ করতে গেলে উল্টো বালু বহনকারীর হাতে নাজাহাল হয়।তারা বলেন,বালুগুলো মুক্তার বালু পয়েন্ট থেকে আনা হচ্ছে।এবিষয়ে তাৎক্ষণিক ইউএনও মহোদয়কে অবগত করেছেন বলে জানিয়েছেন।

স্হানীয়রা জানান, আমিনুল হক মুক্তা নাকি স্হানীয় চেয়ারম্যানের আপন ভাতিজা।

এবিষয়ে চেয়ারম্যান মনজুরুল কাদের বলেন,এই বালু উত্তোলনের সাথে মুক্তা জড়িত নেই।একটি মহল আমাদেরকে সুনামক্ষুন্ন করার লক্ষে তা রটাচ্ছে।শুধু এই পয়েন্ট নয়,বালু উত্তোলন করছেন এমন আরো অনেক পয়েন্ট রয়েছে।সবক’টি বন্ধ করে দেওয়ার জন্য আমি প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করছি।

চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মোঃ ফকরুল ইসলাম বলেন,আমাকে বমু খালের বালু উত্তোলন সম্পর্কে বেশকিছু লোকেরা ফোনে জানিয়েছেন বলে লাল পতাকা উঁচিয়ে দেওয়া হয়েছিল।তবুও যারা আইন অমান্য করে বালু করছেন,আমি অবশ্যই তাদের বিরুদ্ধে কঠোরভাবে দ্রূত ব্যবস্হা নিব।সোমবার রাতে বালু বহনকারী গাড়ীর কারণে যানজট সৃষ্টি সম্পর্কে একলোক ফোনে জানান।বিষয়টি আমি চেয়ারম্যানকে বলেছি ও সর্তক করেছি।উপজেলা প্রশাসন অবৈধ বালু উত্তোলনের বিষয়টি কঠোরভাবে দমনে বদ্ধ পরিকর বলে জানিয়েছেন তিনি।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..
এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Developed By Bangla Webs