সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪, ১১:৫৭ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
মহেশখালীতে আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে বর্ণাঢ্য র‍্যালি মাতারবাড়ীতে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের মাঝে উপজেলা চেয়ারম্যান জয়নাল আবেদীনের ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ মহেশখালী প্রেসক্লাবে প্রয়াত সাংবাদিক শফিকুল্লাহ খানের স্মরণে দোয়া মাহফিল কক্সবাজার পৌরশহরে বাদশাঘোনায় পাহাড় ধ্বসে ঘুমন্ত অবস্থায় স্বামী-স্ত্রীর মুৃত্যু! ছোট মহেশখালীতে নিখোঁজ মা-ভাইয়ের সন্ধান পেতে সন্তানের আকুতি খোন্দকারপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের পুনর্মিলনী অনুষ্ঠিত বর্ষার শুরুতেই কক্সবাজারের উখিয়ায় দুটি রোহিঙ্গা ক্যাম্পে পাহাড়ধস,নিহত-১১ কক্সবাজারে ‘মাদক প্রতিরোধে সামাজিক আন্দোলনের গুরুত্ব’ শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত রামুতে ৮টি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের অংশগ্রহনে দুর্নীতি বিরোধী বিতর্ক প্রতিযোগিতা উদ্বোধন ঢাকায় এসি বিস্ফোরণ: জীবন যুদ্ধে হেরে গেলেন মহেশখালী মাতারবাড়ীর আবদুল মান্নান

কুতুবদিয়ায় বিশ্ব বন্যপ্রাণী দিবস পালিত

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট টাইম : রবিবার, ৩ মার্চ, ২০২৪
  • ৫৪২ বার পঠিত

কুতুবদিয়া (কক্সবাজার) প্রতিনিধি।

“পৃথিবীর অস্থিত্বের জন্য প্রাণিকুল বাঁচাই” এ শ্লোগানকে সামনে রেখে কুতুবদিয়ার পরিবেশবাদীরা বিশ্ব বন্যপ্রাণী দিবস পালন করেছে।

কক্সবাজারের কুতুবদিয়ায় ৩ মার্চ ২০২৪ বিকাল তিনটায়
পরিবেশ ও জলবায়ু বিষয়ক জাতীয় সংগঠন ‘ধরিত্রী রক্ষায় আমরা (ধরা) ও ওয়াটারকিপার্স বাংলাদেশ এবং কুতুবদিয়া দ্বীপ সুরক্ষা আন্দোলন (কেডিএস) এর যৌথ উদ্যােগে বড়ঘোপ সমুদ্র সৈকতের কচ্ছপ প্রজন পয়েন্টে মানববন্ধন করেন। মানববন্ধনে সংগঠনের নেতা কর্মীরাসহ সর্বস্থরের লোকজন উপস্থিত ছিলেন।

মানববন্ধন শেষে কুতুবদিয়ার বেলাভূমি রেস্টুরেন্ট সেমিনার কক্ষে বেলা সাড়ে তিনটায় বিশ্ব বন্যপ্রাণী দিবসের আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন, ধরিত্রী রক্ষায় আমরা (ধরা) কুতুবদিয়া উপজেলা শাখার আহবায়ক এম, শহীদুল ইসলাম, যুগ্ম আহবায়ক মাস্টার মোঃ আমিনুল হক, সদস্যসচিব সাংবাদিক শাহেদুল ইসলাম মনির প্রমূখ এবং সঞ্চালনা করেন, যুগ্ম সদস্যসচিব মাস্টার মিজানুর রহমান,

এ সময় বক্তরা বলেন, ২০১৩ সালের ২৩ ডিসেম্বর জাতিসংঘের ৬৮ তম সাধারণ অধিবেশনে বন্যপ্রাণী দিবস হিসেবে ৩ মার্চ ঘোষণা করা হয়। ২০১৪ সালে প্রথম এ দিবসটি পালন করা হয। বিশ্বের বন্যপ্রাণী এবং উদ্ভিদগুলির প্রতি গণসচেতনা বৃদ্ধি করাই এ দিবসের মূল লক্ষ্য। বাংলাদেশে সরকার বন ও বন্যপ্রাণী সংরক্ষণের জন্য ৫৩টি সংরক্ষিত এলাকা ঘোষনা করেছে। জলবায়ু পরিবর্তন জনিত কারন, বন উজাড় এবং বন্যপ্রাণীর আবাসস্থল ধ্বংস করার কারণে উপকূলের বিভিন্ন প্রজাতির প্রাণী মহা বিপন্ন প্রায়। তাই সকলকে বন্যপ্রাণী এবং উদ্ভিদ গুলোর প্রতি গণসচেতনতা তৈরির আহবান জানান।

উক্ত মানববন্ধনন ও আলোচনা সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন, মনজুর আলম, মোরশেদ আলম, রাইতুল ইসলাম রাহাত, মোঃ দাউদ, জিয়াবুল, শফিউল আলমসহ সর্বস্তরের পেশাজীবি লোকজন।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..
এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Developed By Bangla Webs