সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪, ০১:১৭ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
মহেশখালীতে আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে বর্ণাঢ্য র‍্যালি মাতারবাড়ীতে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারের মাঝে উপজেলা চেয়ারম্যান জয়নাল আবেদীনের ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ মহেশখালী প্রেসক্লাবে প্রয়াত সাংবাদিক শফিকুল্লাহ খানের স্মরণে দোয়া মাহফিল কক্সবাজার পৌরশহরে বাদশাঘোনায় পাহাড় ধ্বসে ঘুমন্ত অবস্থায় স্বামী-স্ত্রীর মুৃত্যু! ছোট মহেশখালীতে নিখোঁজ মা-ভাইয়ের সন্ধান পেতে সন্তানের আকুতি খোন্দকারপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের পুনর্মিলনী অনুষ্ঠিত বর্ষার শুরুতেই কক্সবাজারের উখিয়ায় দুটি রোহিঙ্গা ক্যাম্পে পাহাড়ধস,নিহত-১১ কক্সবাজারে ‘মাদক প্রতিরোধে সামাজিক আন্দোলনের গুরুত্ব’ শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত রামুতে ৮টি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের অংশগ্রহনে দুর্নীতি বিরোধী বিতর্ক প্রতিযোগিতা উদ্বোধন ঢাকায় এসি বিস্ফোরণ: জীবন যুদ্ধে হেরে গেলেন মহেশখালী মাতারবাড়ীর আবদুল মান্নান

ঈদগাঁওতে পাচার কালে বিপুল পরিমান সরকারি বই জব্দ !

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট টাইম : শনিবার, ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০২৩
  • ২৯৫ বার পঠিত

শেফাইল উদ্দিন,কক্সবাজার:

কক্সবাজারের ঈদগাঁও উপজেলার এক মাদ্রাসা থেকে থেকে সরকারী বই বিক্রি করে পাচারের সময় হাতে নাতে ধরে ফেলেছে স্থানীয়রা।

শুক্রবার (২৯ সেপ্টেম্বর ) বেলা ১২টার দিকে

উপজেলার জালাবাদ ইউনিয়নের পালাকাটা গোলজার বেগম দাখিল মাদ্রাসায় এ ঘটনা ঘটে।

জানা যায়, জালালাবাদ ইউনিয়নের পালাকাটা গুলজার বেগম দাখিল মাদরাসা থেকে সরকারী বই বিক্রি করে পাচার কালে স্থানীয় জনতা হাতে নাতে আটক করে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ জাকারিয়াকে খবর দেন। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে ঘটনাস্থল থেকে বিক্রির জন্য মজুদকৃত বিপুল পরিমাণ মাদরাসা শিক্ষা বোর্ডের সরকার বই জব্দ করেন।

পরে জেলা শিক্ষা অফিসারকে বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য নির্দেশ প্রদান করলে জেলা শিক্ষা অফিসার একাডেমিক সুপারভাইজার মোহাম্মদ রাশেদকে ঘটনাস্থলে প্রেরণ করেন।

ঘটনাস্থলে উপস্থিত থাকা জালাবাদ ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক সাহেদ কামাল ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, বিক্রি করা মাদ্রাসার বই গুলো আমাদের সামনে স্থানীয় লোকজন কাভার ভ্যান থেকে উদ্ধার করে পরে খবর পেয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ঘটনা স্থলে পৌঁছেন।

স্থানীয়দের অভিমত, মাদরাসা সুপারের প্রত্যক্ষ যোগসাজশে মাদরসার অন্যান্য কর্মচারীদের মাধ্যমে এই অপকর্ম সংঘটিত করেছেন। অতীতেও এমন ঘটনা একাধিকবার ঘটেছে।

এবিষয়ে গুলজার বেগম দাখিল মাদরাসার সুপার মাওলানা আনিস মোহাম্মদ আবদুল্লাহর মোবাইলে যোগাযোগ করা হলে সংযোগ না পাওয়ায় বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..
এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Developed By Bangla Webs